31 C
Dhaka
বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, | সময় ৪:৩৮ অপরাহ্ণ

কুমিল্লায় কুরআন অবমাননায় মনপুরায় বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত।


মেহেদী হাসান রাকিব,মনপুরা উপজেলা প্রতিনিধি: 

 কুমিল্লায় পূজা মন্ডপে কুরআন অবমাননার তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বিভিন্ন সংগঠন।
 আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১০ ঘটিকায় ভোলার মনপুরা উপজেলায় হেলিপোর্ট স্থানে  মনপুরার বিভিন্ন ইসলামি সংগঠন ও দলমত নির্বিশেষে  সকল নেতৃবৃন্দ এবং সকল শ্রেনির মানুষ বিক্ষোভ সমাবেশে অংশ গ্রহন করেন। 
এসময়ে মাওলানা মফিজুল ইসলাম(সভাপতি ইমাম সমিতি) হাফেজ আব্দুল মান্নান(প্রধান শিক্ষক মুখবলিয়া মাদ্রাসা) মাওলানা নেছারউদ্দিন (প্রধান শিক্ষক বহুমুখী মাদ্রাসা) প্রমুখ এদের নেত্রীত্বে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। 
২নং হাজিরহাট ইউপি চেয়ারম্যান নিজামউদ্দিন হাওলার, আওয়ামী লীগ যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মোশারেফ হোসেন মজনু ফরাজি, ৪নং দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউপি চেয়ারম্যান অলি উল্লাহ কাজল সহ অনেকে এ সময়ে বক্তব্য রাখেন।   ঘটনার সাথে জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবী জানান।অন্যথায় সারাদেশে আন্দোলনের দাবানল ছড়িয়ে পড়বে বলে তারা হুঁশিয়ারী দিয়েছিলেন। কুমিল্লায় হিন্দুদের পূজা মণ্ডপে পবিত্র কুরআন অবমাননার প্রতিবাদ জানিয়েছেন  আলোচকেরা। 
 এসময়ে ইসলামি  নেতারা বলেন, কুমিল্লার নানুয়া দীঘির পাড়ের পূজা মণ্ডপে পবিত্র কুরআনকে যেভাবে অবমাননা করা হয়েছে, তা কিছুতেই মেনে নেওয়া যায় না। যারা বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করতে চায়, তাদের বিরুদ্ধে অতিসত্বর কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে। তারা বলেন, দেশের ইসলামপ্রিয় জনতাকে দুর্বল মনে করবেন না। এদেশের তৌহিদী জনতা নিজেদের ঈমান-আকিদা রক্ষা করতে জানে। এভাবে কুরআনকে অবমাননা করা হবে আর দেশের ইসলাম প্রিয় জনতা বসে থাকবে, এ হতে পারে না। 
আমরা প্রশাসনকে সতর্ক করে বলে দিতে চাই, আপনারা এসব ষড়যন্ত্রকে থামান, দোষীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করুন। না হয় পরিস্থিতি অশান্ত হলে এর দায়ভার সরকারকেই নিতে হবে। এই ঘটনার প্রতিবাদ শুধু মনপুরায় নয়, সারা দেশে ছড়িয়ে পড়বে। তখন থামাতে চেষ্টা করলেও থামানো যাবে না। যে পূজা মণ্ডপে এই ঘটনা ঘটেছে, সে মণ্ডপ অবিলম্বে বন্ধ করুন। যারা এই ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত, তাদের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে খুঁজে বের করে গ্রেপ্তার করুন। দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা করুন।

 তাঁরা বলেন, কতিপয় উগ্র হিন্দু সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা বাধানোর লক্ষ্যে পরিকল্পিতভাবে মুসলমানদের পবিত্র ধর্মগ্রন্থ কুরআনের অবমাননা করেছে। যা মুসলমানদের হৃদয়ে চরমভাবে আঘাত হেনেছে। এ ঘটনার সাথে জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতার করতে হবে। 
নেতৃদ্বয় আরো বলেন, মুসলমানগণ শান্তিপ্রিয় জাতি। তারা নিজ ধর্ম ইসলাম, আল্লাহ-রাসুল ও কুরআন- হাদিসকে তাদের জীবনের চেয়েও বেশি ভালোবাসেন। তাই পবিত্র কুরআনের অবমাননা তারা বরদাশত করতে পারে না। জীবনের বিনিময়ে হলেও তারা তাদের পবিত্র ধর্মের মর্যাদা রক্ষা করতে চেষ্টা করে। কুমিল্লায় পবিত্র কুরআন অবমাননাকারীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক বিচার করতে ব্যর্থ হলে পরিস্থিতি ভয়াবহ হতে পারে।
    পূজামন্ডপে পবিত্র কুরআন অবমাননার ঘটনায় বিক্ষুব্ধ তাওহিদী জনতার উপর নির্বিচার গুলি বর্ষণের ঘটনারও তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় আরো বলেন, বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রতি বিনষ্টের নানামুখী ষড়যন্ত্র চলছে। কুমিল্লায় পবিত্র কুরআন অবমাননার ঘটনা গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ। এ ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সবাইকে সজাগ ও সচেতন হতে হবে। নেতৃদ্বয় দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রতি রক্ষায় ধর্মপ্রাণ তাওহিদী জনতাকে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনের আহ্বান জানান।সর্বশেষ একদল লোক মনপুরা উপজেলা প্রশাসনকে স্মারক লিপি জমা দিয়েন থাকেন। 

উক্ত বিষয়ে মনপুরা উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীম মিঞা বলেন  আপনারা আইনের প্রতিশ্রদ্ধা রেখে আন্দোলন করেছেন তাই সকলকে ধন্যবাদ  সেই সাথে আমরা ও চাই যাহারা এই ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত তাদের আইনের আওতায় এনে বিচার করা হোক তাই আমি উক্ত স্মারক লিপি জেলা প্রশাসকের বরাবর হস্তান্তর করবো।  কিন্তু আপনারা সকলে দৃষ্টি রাখবেন যাতো কোনো প্রকার বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি না হয়।

আরও পড়ুন...

আপোষহীন নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া’র ৭৬তম জন্মদিনে ভোলা জেলা যুবদলের শুভেচ্ছা

Al Mamun Sun

আজ বিকাল ৪ টা থেকে গাইবান্ধা জেলার সব কাপড়,তৈরী পোশাক মার্কেট ও বিপনীবিতান বন্ধ ঘোষণা 

Staff correspondent

তাড়াইলে এসএসসি’র ৬ পরীক্ষার্থী  বহিষ্কার 

Staff correspondent
bn Bengali
X