27 C
Dhaka
বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, | সময় ৪:৩০ পূর্বাহ্ণ

প্রতিবন্ধী রাশেদাকে নতুন ঘরের চাবি ও জায়গার দলিল হস্তান্তর করলেন মনির চৌধুরী ও ওমর ফয়সাল

নিজস্ব প্রতিবেদক:

সন্দ্বীপে প্রতিবন্ধীদের নিয়ে কাজ করা বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা রিকল প্রজেক্ট এসডিআই’র ফিল্ড ফ্যাসিলিটেটর বাদল রায় স্বাধীনের কাজের অংশ ও এসএনটিভির নিউজের সুবাদে প্রতিবন্ধী রাশেদা এখন সবার কাছে পরিচিত একটি নাম। যার বসবাস ছিলো বেড়িবাঁধের বাইরে একটি অরক্ষিত জায়গায়। খাদ্যের অভাবে যে রাস্তার পাশে মানুষের খেয়ে ফেলে দেওয়া তরমুজের খোঁসা রান্না করে খাওয়ার জন্য কুটি কুটি করে কাটছিলো একদিন।এমন দৃশ্য চোখে পড়া বাদল রায়ের কাছে দুর্ভিক্ষের মতো ঠেকছিলো।আর এ দৃশ্য দেখে এসএনটিভিতে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করলেন তিনি। প্রতিবেদন প্রকাশের পর দেশ বিদেশ থেকে প্রচুর টাকা ও খাদ্য সহায়তা আসতে থাকে,পেয়ে যায় হুইল চেয়ার সহ আর এসএস খাটও । তার খাদ্য অনিশ্চয়তা দুর হয়ে হয়ে যায় মাত্র কয়েকদিনে। ব্যাংক একাউন্টে জমা হয় প্রায় লক্ষাধীক টাকা। কিন্তু তার নিরাপদ আবাস ও জায়গার মালিক হওয়া ছিলো অকল্পনীয়।আজ সে স্বপ্নও পুরন হলো তার।তার হাতে হস্তান্তর করা হলো আজ তার নতুন ঘরের চাবি ও ৩ শতক জায়গার দলিলও।

আজ ১ জানুয়ারী মানব দরদী বিশিষ্ট সমাজ সেবক আমেরিকা প্রবাসী মনিরুজ্জামান চৌধুরী প্রকাশ শিমুল চৌধুরীর পক্ষ থেকে সেই প্রতিবন্ধী রাশেদা বেগমকে একটি টিনের ঘর, পানির কল,সৌর বিদ্যুৎ ও টয়লেট সহ পুর্নাঙ্গ একটি আবাস স্থলের চাবি মানবতার উপহার হিসাবে আনুষ্ঠানিক হস্তান্তর করা হয়েছে। সঙ্গে দেওয়া হয়েছে সন্দ্বীপের আরেক মানবিক যুবক মোহনা টিভির সন্দ্বীপ প্রতিনিধি ওমর ফয়সাল এর টাকায় কিনে দেওয়া ৩ শতক জায়গার দলিলও।

উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিশিষ্ট চিকিৎসক ও সমাজ সেবক ডাঃ মোজাম্মেল হোসেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সেই গৃহ সামগ্রী উপহার দেওয়া আমেরিকা প্রবাসী মনিরুজ্জামান প্রকাশ শিমুল চৌধুরী,বিশেষ অতিথি ছিলেন ভুমি দাতা সাংবাদিক ওমর ফয়সাল,অনুষ্ঠানের উদ্বোধক ছিলেন রিকল প্রজেক্ট এসডিআই’র প্রকল্প সমন্বয়কারী শ্যামল রায়। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ইউপি সদস্য জাকের হোসেন, সমাজ সেবক মোস্তফা কামাল পাশা,রিকল প্রজেক্টের কমিউনিটি মোবিলাইজার ওমর ফারুক,সংবাদ কর্মী ফসিহুল আলম। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন যার নিউজের বদৌলতে রাশেদার এতো প্রাপ্তি সে উন্নয়ন কর্মী বা রিকল প্রজেক্ট প্রতিনিধি ও সাংবাদিক বাদল রায় স্বাধীন।

সভায় বক্তারা বলেন বাদল রায় স্বাধীনের মতো উন্নয়ন কর্মী ও অনুসন্ধানী সংবাদ কর্মীর একটি রিপোর্টে পাল্টে গেলো রাশেদার জীবন।যে রিপোর্ট দেখে মানবিক মানুষদের চোখ থেকে জল গড়িয়ে পড়েছে নিজের অজান্তে। সেই নিউজটি এতই হৃদয় বিদারক হিসেবে উপস্থাপন করেছে যে দেশ বিদেশ থেকে প্রচুর মানুষ বিভিন্ন সহায়তা নিয়ে এগিয়ে এসেছে। আজ সেই নিউজের বদৌলতে দুই মানবিক ও সাদা মনের মানুষের সহযোগিতায় রাশেদা একটি নিরাপদ আবাস স্থল সহ একখন্ড জমির ও মালিক হলো।আমরা এই দুই মানবতাবাদী মানুষের সুস্থ, সুন্দর দীর্ঘ জীবন কামনা করছি। সাথে সংবাদ কর্মী বাদল রায় স্বাধীনের জন্যও। ওনাদের এই দান প্রমান করে এখনো পৃথিবীতে ভালো মানুষ রয়েছে, মানবিকতা হারিয়ে যায়নি।ওনারা মানবতার বিরল নজির স্থাপন করলেন।

অনুষ্ঠানে চাবি হস্তান্তরের পুর্বে রাশেদা তার অনুভুতি প্রকাশ করতে গিয়ে বলেন মাত্র কিছুদিন পুর্বেও আমার পিতা ও ভাই ছিলোনা। আজ অনেকে আমার বাবা ও ভাইয়ের ভুমিকা পালন করছে। আজ আমি মোটেও একা নয়।আজ আমার অনেক স্বজন। শিমুল চৌধুরী ও ফয়সাল ভাইয়ের মতো অভিবাবকরা আজ আমার দায়িত্ব নিয়েছে। আজ এ সমস্ত প্রাপ্তির জন্য আমি বাদল ভাইয়ের কাছে কৃতজ্ঞ, কৃতজ্ঞ রিকল প্রজেক্ট এসডিআই ও এসএনটিভির প্রতি। যারা আমাকে আজ নিরাপদ আবাস উপহার দিলেন সবার জন্য আল্লার দরবারে আমি দোয়া প্রার্থনা করছি। আল্লাহ যেন ওনাদের সুখে শান্তিতে রাখেন এবং আমার অভিবাবক হয়ে থাকেন ছায়ার মতো।

অনুষ্ঠানের পুর্বে রিকল প্রজেক্টের আওতাধীন লতা সিবিও’র অনেক নারী সদস্যরা এসে রাশেদার ঘরের সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য কোদাল,ঝাড়ু, পানির বালতি নিয়ে ঘরের ভিটি লেপন ও দর্মুজ করা শুরু করেন। এ যেন প্রতিবন্ধীকে সকলে সহযোগীতার এক অনন্য দৃষ্টান্ত।

আরও পড়ুন...

নোয়াখালীতে প্রযুক্তির সহায়তায় ধরা খেল চাঁদাবাজ

Al Mamun Sun

ভাঙ্গায় ৮ জুয়াড়ি গ্রেফতার।

Al Mamun Sun

ভাতিজা জেতানোর জন্য এমপির ব্যাংকের ৭ কর্মকর্তাকে নির্বাচনী দায়িত্ব দেওয়ার অভিযোগ

Al Mamun Sun
bn Bengali
X