20 C
Dhaka
রবিবার, ৩ মার্চ ২০২৪, | সময় ৯:৪১ পূর্বাহ্ণ

ছুটির দিনে পর্যটকের ভীড়ে মুখরিত কুয়াকাটা সমুদ্র-সৈকত, নেই কোন করোনার বিধি-নিষেধ ॥

কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি:

কুয়াকাটা সৈকত পর্যটকের ভীড়ে মুখরিত হয়ে উঠছে, করোনার বিধি-নিষেধ তুলে নেয়ার পর শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির দিনে হাজারো পর্যটকের ভীড় জমেছে সমুদ্র সৈকত কুয়াকাটায়। বালিয়াড়ীতে অনেকে নেচে গেয়ে আনন্দ-উন্মাদনায় মেতেছেন। আবার অনেকেই সমুদ্রের নোনা জালে গাঁ ভাসিয়ে উপভোগ করছেন। জিরো পয়েন্ট থেকে শুরু করে গঙ্গামতি, ঝাউবাগান, শুটকি পল্লী, ফিস ফ্রাই মার্কেট, বৌদ্ধ বিহার ও ইলিশ পার্কেও পর্যটকদের উপস্থিতি ছিলো চোখে পড়ার মতো।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকেল থেকেই সৈকতের বিভিন্ন পয়েন্টে পর্যটকদের আনাগোনা বেড়ে গেছে। বেশিরভাগই রয়েছে পিকনিক পার্টি। এরফলে প্রানচা ্যলতা ফিরে এসেছে পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে। তবে বুকিং রয়েছে অধিকাংশ হোটেল-মোটেল। করোনা পরিস্থিতির কারনে দীর্ঘদিন এসব মানুষ ঘরবন্দী ছিলো বলে জানায় পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা।

ঘুরতে আসা পর্যটক মশিউর রহমান এ প্রতিনিধিকে বলেন, দীর্ঘ দুই বছর ঘরকুনো হয়ে গেছি। এখন করোনার বিধি নিষেধ তুলে নেওয়া হয়েছে। তাই পরিবার-পরিজন নিয়ে কুয়াকাটায় এসেছি। এখানকার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য আমাদের মুগ্ধ করেছে। বাচ্চারা বেশ মজা পাচ্ছে। এছাড়াও উপভোগ করছেন সূর্যোদয়-সূর্যাস্তের অপরূপ-নৈসর্গিক দৃশ্য। আরেক পর্যটক সাইমুম আজাদ বলেন, অনেক দিনের পরিকল্পনা ছিল,বন্ধুরা মিলে কুয়াকাটায় আসব। তাই আমাদের ২৫ জনের একটি টিম নিয়ে এসেছি। বেশ স্বাচ্ছন্দে আনন্দ-উল্লাস করছি।

হোটেল সমুদ্র বাড়ির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো: জহিরুল ইসলাম মিরন এ প্রতিবেদককে বলেন, পর্যটকদের ব্যাপক সমাগম ঘটেছে। তাদের হোটেলের একটি রুমও খালি নই। এ আবস্থা আরো দুই দিন থাকতে পারে।

কুয়াকাটা ইলিশ পার্ক ইকো রিসোর্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রুমান ইমতিয়াস তুষার এ প্রতিনিধিকে বলেন, করোনার বিধি-নিষেধ না থাকায় পর্যটকরা আসতে শুরু করেছে। তাদের রিসোর্টের পক্ষ থেকে আগত পর্যটকদের সেবা প্রদান করা হচ্ছে।

ট্যুর অপারেটর এ্যাসোশিয়েশন টোয়াকের সাধারন সম্পাদক কেএম জহির সাংবাদিকদের বলেন, বিগত দিনগুলোর তুলনায় এখন পর্যটকের সংখ্যা অনেকটাই বেশি। অধিকাংশ হোটেলই বুকিং রয়েছে। এ অবস্থা থাকলে হোটেল ব্যবসায়ীরা করোনার ধকল কাটিয়ে উঠতে পারবে বলে তিনি জানান।

কুয়াকাটা ট্যুরিষ্ট পুলিশ জোনের সহকারী পুলিশ সুপার আবদুল খালেক গনমাধ্যমকে বলেন, পর্যটকদের নিরাপত্তায় মাঠে রয়েছে ট্যুরিষ্ট পুলিশ। এছাড়াও দর্শনীয় স্পটগুলেতে তাদের পুলিশ টহলে রয়েছে। আগত পর্যটকদের নিরাপত্তায় সার্বক্ষনিক নিয়োজিত রয়েছে ট্যুরিষ্ট পুলিশ।

আরও পড়ুন...

ময়মনসিংহে করোনা সংক্রমনরোধে কোচিং সেন্টারে অভিযান।

Al Mamun Sun

ভাতিজা জেতানোর জন্য এমপির ব্যাংকের ৭ কর্মকর্তাকে নির্বাচনী দায়িত্ব দেওয়ার অভিযোগ

Al Mamun Sun

ঠাকুরগাঁও বালিয়াডাঙ্গীতে ডাক-বাংলোর শুভ উদ্ভোধন করেন:এম পি দবিরুল ইসলাম

Al Mamun Sun
bn Bengali
X