28 C
Dhaka
বুধবার, ৮ জুলাই ২০২০, | সময় ৬:৫৫ পূর্বাহ্ণ

সন্দ্বীপ পৌরসভায় ৪ কোটি টাকার পাম্প হাউজের মাধ্যমে সুপেয় পানি সরবরাহ শুরু হচ্ছে খুব শিঘ্রই

বাদল রায় স্বাধীন

থানা সদর ও গ্রোথ সেন্টারে অবস্থিত পৌরসভা সমূহে পাইপ লাইনের মাধ্যমে পানি সরবরাহ ও এনভায়রনমেন্টাল স্যানিটেশন প্রকল্প দ্বিতীয় পর্বের আওতায় প্রায় ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে সন্দ্বীপ পৌরসভার ২ হাজার পরিবারে সুপেয় পানি সরবরাহ শুরু হচ্ছে খুব শিঘ্রই। সন্দ্বীপ একটি উপকূলীয় এলাকা ও চারদিকে লোনা পানি বেষ্টিত হওয়ায় সন্দ্বীপের স্যালু টিউবওয়েল গুলোর লবনাক্ততা বেশী ও আর্সেনিক প্রবন হওয়ার কারনে দীর্ঘ সময় ধরে পানীয় জলের সংকট বিদ্যমান এলাকায়,ফলে পানি বাহিত রোগে ভুগছে এলাকার জনগন এছাড়াও দূর থেকে পানি সংগ্রহ করতে গিয়ে নারীরা প্রতিনিয়ত হিমশিম খাচ্ছে।এ দুর্ভোগ লাঘবে এগিয়ে এসেছে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর সন্দ্বীপ।২০১৬-১৭ অর্থবছরে শুরু হওয়া ৪ কোটি টাকার এই প্রকল্পের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে হওয়ায় অতিসম্প্রতি পানি সরবরাহ কার্যক্রমের অানুষ্ঠানিক উদ্বোধন হতে যাচ্ছে।

সন্দ্বীপ পৌরসভার নন্দিত মেয়র জাফর উল্যা টিটু জানান ৩ টি পাম্পের মাধ্যমে ২ হাজার পরিবারে পানি সরবরাহের পাশাপাশি ৪ টি পাবলিক টয়লেট এর মাধ্যমে স্যানিটেশন ব্যবস্থার উন্নয়ন ও হচ্ছে এক সাথে,ফলে জনস্বাস্থ্য উন্নয়নে এটি ব্যাপক ভুমিকা রাখবে। বক্তার হাট, সেনের হাট ও কোস্টগার্ড মাঠ সংলগ্ন তিনটি স্থানে স্থাপিত পাম্প হাউজ থেকে তিনজন অপারেটর নিয়োগের মাধ্যমে প্রতি ঘন্টায় ২ লক্ষ ৩৪ হাজার লিটার করে পানি উত্তোলন ও সাপ্লাই দিতে পারবেন বলেও অাশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।তবে উপজেলা উপজেলা প্রশাসনিক ভবনের পাশ্বের পাবলিক টয়লেটটি বন্ধ কেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন উপজেলা ভবনের গাইডওয়াল ভেঙ্গে একটি পাবলিক টয়লেটের দরজা প্রদানে উপজেলা প্রশাসনের অস্বীকৃতি বা উদাসীনতার কারনে সন্দ্বীপ উপজেলা কমপ্লেক্সে ভবনের পাশ্বের প্রায় ৩৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মিত পাবলিক টয়লেটটি অকেজো হয়ে পড়ে আছে বা জনগন ব্যবহার করতে পারছেনা।

জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের উপ-সহকারী প্রকৌশলী রবিন সরকার জানান ৩ টি ১২.৫ এইচপি পাম্প ও তিনটি প্রোডাকশন টিউবওয়েলের মাধ্যমে ২১ কিলোমিটার এলাকায় পাইপ লাইনের কাজ সমাপ্ত হয়েছে এবং ইতিমধ্যে ৪৫০ পরিবারে সংযোগ প্রদান করা হয়েছে।পর্যায়ক্রমে ২ হাজার পরিবারে সংযোগ দেওয়া হবে।এবং আমরা এটির পরীক্ষামুলক সংযোগ দিয়ে সফল হয়েছি।DPHE এর অর্থায়নে এটি সম্পন্ন হলেও আমরা পৌরসভার কাছে অানুষ্ঠানিক হস্তান্তর করবো এরপর ওনাদের ব্যবস্থাপনায় এটি পরিচালিত হবে। উক্ত পাম্প হাউজ ও পাবলিক টয়লেট উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে পৌরসভায় একটি সুন্দর ও নির্মল পরিবেশ তৈরি হবে এবং দরিদ্র জনগোষ্ঠী অনেক রোগব্যাধী মুক্ত হবে ও তাদের চিকিৎসা ব্যয় কমবে বলে মনে করছেন সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা।

আরও পড়ুন...

কুড়িগ্রামে পানিবন্দি লাখ লাখ মানুষ, শুকনো খাবার ও পানির সংকট

Staff correspondent

সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় দেশী অস্ত্রসহ ৪ ডাকাত আটক

Staff correspondent

রাজারহাটে সাজিনা বেগম খুন, পরিবারটির এখন করুন পরিনতি

Staff correspondent
bn Bengali
X