29 C
Dhaka
শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, | সময় ১১:০২ অপরাহ্ণ

মোংলা বন্দরের কণজারভেন্সী কর্মকর্তা মান্নান মল্লিকের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ

বিশেষ প্রতিনিধিঃ

যথাযথ নিয়ম না মেনে মোংলা বন্দরের কর্মচারীর পদমর্যাদার একজন মাষ্টার দায়িত্ব পালন করছেন কণজারভেন্সী ২য় শ্রেনীর কর্মকর্তা হিসেবে। একই সাথে তিনি নৌযান চালকের দায়িত্বে থেকে প্রতি মাসে অতিরিক্ত ডিউটি করার অজুহাত দেখিয়ে বন্দরের কোষাগার থেকে অর্ধলক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ার পাশাপাশি কণজারভেন্সী কর্মকর্তার পদ ব্যবহার করে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারদের কাছ থেকে সুবিধা নেয়া ও বিভিন্ন অজুহাতে বন্দরের টাকা অত্বসাৎ করার অভিযোগ উঠেছে।
অভিযুক্ত আঃ মান্নান মল্লিক,মোংলা বন্দরের এমভি মাল জাহাজের মাষ্টার(চালক) হিসেবে কর্মরত আছেন। ২০১৯ সালে মাঝামাঝি থেকে বন্দরের হারবার বিভাগের সুপারিশে দায়িত্ব পালন করছেন কণজারভেন্সী কর্মকর্তা হিসেবে।
মোংলা বন্দরের নৌযান এমভি মেঘদুত এর সুকানী জামাল উদ্দিন জানান,কনজারভেন্সী কর্মকর্তার সাইন বোড ঝুলিয়ে আঃ মান্নান মল্লিক প্রতিনিয়ত সরকারী টাকা আত্বসাৎ করছেন। মাত্র কয়েকদিন আগে তিনি কয়েক ঘন্টা জাহাজ চালিয়ে দুই দফায় ৬০ ব্যারেল আর ৪৪ ব্যারেল ডিজেল আত্বসাৎ করেছেন। আঃ মান্নানের বিরুদ্ধে প্রতি মাসে ৪৫ হাজার টাকা অতিরিক্ত ডিউটি দেখিয়ে তিনি আত্বসাৎ করার অভিযোগ তোলেন জামাল উদ্দিন। বন্দরের প্রশাসনিক আদেশ ছাড়া শুধু মাত্র দপ্তর প্রধানের সুপারিশে কনজারভেন্সী কর্মকর্তার দায়িত্ব পেয়ে নদীতে স্যালভেজ কার্যক্রমের টাকা আত্বসাৎসহ আঃ মান্নান নানা অনিয়মে জড়িয়ে পড়েছেন বলে জানান, বন্দরের ওই নৌযানের কর্মচারী।
অন্যদিকে বন্দরের নৌযান এম এল পান্না জাহাজের আরেক কর্মচারী নাম প্রকাশ না করা শর্তে বলেন,আঃ মান্নানের অত্যারে তারা এখন অতিষ্ঠ। উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের সাথে সুসম্পর্ক রেখে মান্নান কণজারভেন্সী কর্মকর্তার পদ ভাগিয়ে নিয়েছেন। আর তাদের(কর্মকর্তদের) সাথে মান্নানের সুসম্পর্কের কারনে আমাদের অত্যাচারের বিষয়ে চাকুরী হারানোর ভয়ে মুখ খুলতে পারছিনা।
তবে এতসব অভিযোগের বিষয়ের আঃ মান্নান জানান, তিনি যথাযথ নিয়ম মেনে সব দায়িত্ব পালন করছেন। কোন অনিয়মের সাথে তিনি জড়িত নয়।
মোংলা বন্দরের হারবার মাস্টার কমার্ন্ডার শেখ ফকর উদ্দিন জানান,নিয়ম অনুযায়ী পদোন্নতি পাওয়ার যোগ্য ছিলেন ১ম শ্রেনীর মাস্টার আঃ মান্নান। কিন্তু তিনি পদোন্নতি নিতে রাজি হননি। তাই দপ্তর প্রধান হিসেবে আমি (হারবার মাস্টার) আদেশ দিয়েছি অতিরিক্ত হিসেবে কনজারভেন্সীর দায়িত্ব পালন করার জন্য। অতিরিক্ত দায়িত্ব পালনের কোন প্রশাসনিক আদেশ রয়েছে কিনা এমন এক প্রশ্নের জবাবে তিনি(হারবার মাস্টার) জানান,কনজারভেন্সী দায়িত্ব পালনের কোন সুবিধা আঃ মান্নান পাবেন না তাই কোন প্রশাসনিক আদেশ দেয়া হয়নি।

আরও পড়ুন...

সার্কেল এএসপির হস্তক্ষেপে মসজিদ নিয়ে বিরোধের অবসান

Staff correspondent

নড়াইলে কৃষকলীগ নেতাকে কুপিয়ে আহত আশংকাজনক অবস্থায় ঢাকায় ভর্তি

Staff correspondent

রাজধানীর পাঠাও চালককে ‘গলা কেটে’ হত্যা করা সেই ছিনতাইকারী গ্রেপ্তার, মোটরসাইকেলটিও উদ্ধার

Staff correspondent
bn Bengali
X