29 C
Dhaka
সোমবার, ১৯ অক্টোবর ২০২০, | সময় ১:৩০ অপরাহ্ণ

ভাঙ্গায় কলেজ ছাত্রকে ডিবি পরিচয়ে তুলে নিয়ে মুক্তিপন দাবি ও ষড়যন্ত্রমুলক মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন-প্রতিবাদ সমাবেশ

মাহমুদুর রহমান(তুরান)ভাঙ্গা(ফরিদপুর) প্রতিনিধিঃ

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান সুধীন সরকার মঙ্গলের ভাতিজা ও ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী চন্দন সরকারের মুক্তি ,তার বিরুদ্বে ষড়যন্ত্রমুলক মামলা প্রত্যাহার এবং দোষীদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবীতে মানব বন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করেছে ভাঙ্গার সচেতন নাগরিক সমাজ। শনিবার বিকেলে ভাঙ্গা পৌরসভার চন্দীদাসদী গ্রামে সাংবাদিক গৌতমদাস সড়কের সামনে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মী, শিক্ষক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের সদস্যদের উপস্থিতিতে ঘণ্টাব্যাপী এই মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এসময় বক্তারা অবিলম্বে কলেজ ছাত্র চন্দন সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মাদক মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান। মানবন্ধনে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান সুধীন সরকার মঙ্গল বলেন, গত ৩ অক্টোবর বিকালে তার নিজ গ্রামের বাড়ি ভাঙ্গা পৌরসভার চন্ডীদাসদী হতে বের হয়ে আলগী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাওছার ভুইয়ার বাড়ির সামনে আসে তার ভাতিজা। এসময় একটি সাদা মাইক্রোবাসে বসে থাকা মাদারীপুর ডিবি পুলিশ পরিচয়ে চন্দন সরকারকে মারধোর করে তুলে নিয়ে যায়। গাড়িতে করে নিয়ে যাওয়ার সেই দৃশ্য ভাঙ্গায় বেশ কয়েকটি সিসি টিভির ফুটেজ রয়েছে বলে জানান তিনি।ওইদিন সন্ধ্যায় ডিবি পুলিশের দারোগা আবু সাঈদ আমার ভাতিজার ফোন দিয়ে ফোন করে আমার কাছে মোটা অংকের টাকাও দাবি করে। তাদেরকে টাকা না দিয়ে আমি ভাঙ্গা থানা পুলিশের সহায়তা চাইতেই ক্ষিপ্ত হয়ে ডিবির এসআই আবু সাঈদ আমার ভাতিজা চন্দন সরকারকে ২০০ পিস ইয়াবাসহ রাজৈর হতে গ্রেপ্তার দেখিয়ে রাজৈর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। দারোগা আবু সাঈদের বাড়ি ভাঙ্গা থানায় হওয়াতে তিনি নিয়মিত ভাঙ্গায় অপরাধ জগতের লোকদের সঙ্গে উঠাবসা করে অসহায় মানুষদের হয়রানি করে থাকে বলে অভিযোগ করেন তিনি।প্রধানমন্ত্রীর কাছে ঘটনার সঠিক বিচার দাবী জানিয়ে তিনি আরও বলেন,গুটি কয়েক পুলিশের অসাধু সদস্যদের কারনে এভাবে যাতে সরকার ও পুলিশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন না হয় এজন্য ঘটনাটি তদন্ত করলেই প্রকৃত সত্য বের হয়ে আসবে ।চন্দন সরকারের বড় ভাই ভাঙ্গা উপজেলা পরিষদের সিএ সুব্রত সরকার বলেন, আমার ছোট ভাই অত্যন্ত মেধাবী সে করোনা কালীন সময়েও কলেজ বন্ধ থাকায় নিয়মিত পড়াশুনা নিয়ে ব্যসÍ থাকত। তাকে ভাঙ্গা থেকে তুলে নিয়ে মাদারীপুরে মিথ্যে মামলা দেওয়ায় ডিবি পুলিশের বিরুদ্বে ব্যাবস্থা গ্রহনের জন্য সরকার প্রধানের কাছে তিনি দাবি করেন। তিনি বলেন, শুধুর টাকার জন্য এভাবে যেন আর কাউকে মিথ্যে হয়রানি করতে না পারে পুলিশ এজন্য তিনি সংশ্লিষ্ট দপ্তরের আশুদৃষ্টি আকর্ষন করে তার ছোট ভাইকে মিথ্যে মামলা থেকে মুক্তি দেওয়ার আহবান জানান।অপরদিকে ভাঙ্গায় সংখ্যালঘু একটি পরিবারে উপরে যারা মিথ্যে মামলা ও পরবর্তীতে পরিবারটিকে হুমকি প্রদান করে ডিবি পুলিশ যে আচরণ করেছে তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন মানববন্ধনকারীরা।এ ব্যাপারে ভাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শফিকুর রহমান বলেন, চন্দন সরকারের অপহরণ ও মাদক মামলার বিষয়ে তার পরিবারের নিকট হতে একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মিঠুন চক্রবর্তী, সরকারি কেএম কলেজের সাবেক ভিপি শওকত হোসেন, এডভোকেট আবুল হাসান, পৌর কাউন্সিলর আবু তালেব, নারী নেত্রী স¤পা আক্তার ও শিল্পী চক্রবর্তী সাবেক কমিশনার আবু তালেব, সিপিবি নেতা প্রভাষ মালো, কামরুজ্জামান নানটু,সাইদ মাসুদ,কামরুর ইসলাম প্রমুখ।

আরও পড়ুন...

রানীশংকৈলে ‘মাকে’ মারপিটের অভিযোগে ছেলে গ্রেফতার  

Staff correspondent

ঝালকাঠিতে নতুন করে আক্রান্ত ৬, জেলায় মোট আক্রান্ত ৩৪ জন

Staff correspondent

কুষ্টিয়ায় আরো ১৯ জন করোনা রোগী শনাক্ত

Staff correspondent
bn Bengali
X